শিরোনাম
কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের পাশাপাশি রাষ্ট্রের সংস্কারের দাবি ছাত্র ইউনিয়নের ‘‘স্থায়িত্বশীল নগরায়ন: সমস্যা ও সমাধান’’ বিষয়ক বাপা’র পুস্তিকা উম্মোচন ৬-৮ জুন ছাত্র ইউনিয়নের ৪২তম জাতীয় সম্মেলন ফার্মগেটের আনোয়ারা উদ্যান ফিরিয়ে দিতে ৩০ দিনের আল্টিমেটাম কর্মসংস্থানবান্ধব বাজেটের দাবিতে যুব ইউনিয়ন এর সেমিনার সিপিবি’র “বাজেট : গণমানুষের ভাবনা” শীর্ষক আলোচনা সভা জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ঘোষণা, রেশন ব্যবস্থা ও ন্যায্যমূল্যের দোকান চালুর দাবি শ্রমিক শ্রেণীর অধিকার আদায় ও শোষণ মুক্তির সংগ্রাম বেগবান করুন তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে বাপা’র ৮ দফা দাবী ১লা মে কিভাবে শ্রমিক দিবস হলো?

১৫ বছর পর পাকিস্তানে খেলতে যাবে ভারত!

১৫ বছর পর পাকিস্তানে খেলতে যাবে ভারত!

১৫ বছর পর অবশেষে পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে যেতে পারে ভারতীয় ক্রিকেট দল! অবিশ্বাস্য শোনালেও এই খবর সত্যি হওয়ার জোর সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

কিভাবে? হঠাৎ এমন কী হলো যে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেটের বরফ গলতে শুরু করেছে? আগামী বছর এশিয়া কাপের আয়োজক পাকিস্তান। ৫০ ওভারের সেই প্রতিযোগিতা খেলতে বাবর আজমদের দেশে গিয়ে খেলতে হতে পারে ভারতকে। এ আলোচনাই এখন শুরু হয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে।

ভারত শেষবার পাকিস্তানে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলতে গিয়েছিল ২০০৬ সালে। সেবার টেস্ট এবং এক দিনের সিরিজ খেলেছিল দুই দেশ।

এরপর দ্বিপাক্ষিক সিরিজ হলেও পাকিস্তানের মাটিতে যায়নি ভারত। সর্বশেষ ২০০৮ সালে এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তানে গিয়েছিল ম্যান ইন ব্লুরা। সেটাই ভারতের শেষবার ক্রিকেট খেলতে পাকিস্তান যাওয়া।

২০১২ সালের পর রাজনৈতিক কারণে দ্বিপাক্ষিক সিরিজও বন্ধ হয়ে যায় দুই দেশের মধ্যে। কেবল বিশ্বকাপ, এশিয়া কাপ, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির মতো আইসিসির প্রতিযোগিতাগুলোয় মুখোমুখি হতো দুই দেশ।

তবে এবার ভিন্ন কিছু হতে পারে। ২০২৩ সালে এশিয়া কাপ হবে পাকিস্তানে। সেই প্রতিযোগিতায় খেলতে পাকিস্তান যেতে পারে ভারত। 'ক্রিকবাজ' সূত্রে জানা গেছে, এই বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কর্তারা ইতিবাচক চিন্তাভাবনা শুরু করেছেন। যদিও ভারত সরকারের অনুমতি পেলে তবেই যেতে পারবেন রোহিত-কোহলিরা।

২০২৩ সালে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ভারতে। তার আগে পাকিস্তান গিয়ে যাতায়াতের পথ খুলতে চাইছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এশিয়া কাপ আয়োজন করে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি)। যার প্রধান ভারতীয় বোর্ডের সচিব জয় শাহ। বিসিসিআই এক কর্মকর্তা বলেন, ‘ভারতের পাকিস্তানে গিয়ে ক্রিকেট খেলা নির্ভর করবে কেন্দ্রীয় সরকারের ছাড়পত্রের উপর।’

২০২৩ থেকে ২০২৭ সালের মধ্যে যদিও ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। দুই দেশের মধ্যে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ আয়োজন করতে সরকারের অনুমতি প্রয়োজন। এখনই তা সম্ভব নয় বলেই মনে করছে বোর্ড।

পাকিস্তানের বিপক্ষে না খেললেও ২০২৩ থেকে ২০২৭ সালের মধ্যে ৩৮টি টেস্ট খেলবে ভারত। এছাড়া ৪২টি ওয়ানডে ম্যাচ এবং ৬১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে তারা।