ফার্মগেটের আনোয়ারা উদ্যান ফিরিয়ে দিতে ৩০ দিনের আল্টিমেটাম

'শহীদ আনোয়ারা উদ্যান রক্ষা আন্দোলন' এর সংহতি সমাবেশ


ফার্মগেটের আনোয়ারা উদ্যান ফিরিয়ে দিতে ৩০ দিনের আল্টিমেটাম

ঢাকার ফার্মগেট এলাকার পার্ক শহীদ আনোয়ারা উদ্যানে মেট্রোরেল স্টেশন বানানো হয়েছে। মেট্রোরেল নির্মাণের বিভিন্ন উপকরণ ও সরঞ্জাম রাখা হয়েছে এখানে। এই অবস্থায় অবিলম্বে পার্কটিকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে সমাবেশ করেছেন বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণি পেশার মানুষ।

১৮ মে শনিবার বিকেলে পার্কটির সীমানা প্রাচীর ঘেঁষে ফার্মগেট মোড়ের দিকে 'শহীদ আনোয়ারা উদ্যান রক্ষা আন্দোলন' উদ্যান ফিরিয়ে দেবার দাবিতে সংহতি সমাবেশ করে। তারা অবিলম্বে শহীদ আনোয়ারা উদ্যানসহ ঢাকার অন্যান্য উদ্যান দখলমুক্ত করার দাবি জানান।

গণপূর্ত অধিদপ্তরের অনুমতি নিয়ে ২০১৮ সাল থেকে পার্কটিকে মেট্রোরেলের প্রকল্প অফিস ও নির্মাণ উপকরণ রাখার কাজে ব্যবহার করছে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)। মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ শেষে এই উদ্যান ফিরিয়ে দেয়ার কথা থাকলেও এখন বাণিজ্যিক প্লাজা তৈরি করে জায়গাটি নিজেদের করে নিতে চাইছে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ।

উদ্যানটি উদ্ধার আন্দোলনের সমন্বয়ক আমিরুল রাজিব ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন, গণপূর্ত অধিদপ্তর ও ডিএমটিসিএল কর্তৃপক্ষকে ৩০ দিনের আল্টিমেটাম ঘোষণা করেন।

প্রাণ-প্রকৃতি বিষয়ক লেখক ও গবেষক পাভেল পার্থর সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন তেঁতুলতলা মাঠ রক্ষা আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক সৈয়দা রত্না, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এর সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক অমিত দে, শিক্ষা আন্দোলনের নেতা রুস্তম আলি খোকন, মানবাধিকার কর্মী শিরিন হক, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ প্ল্যানার্স (বিআইপি) এর সভাপতি আদিল মুহাম্মদ খান, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন আন্দোলন (পরিজা)’র সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আহমেদ উজ্জল, ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা)’র মামুন কবির, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আকতার মাহমুদ, যুব ইউনিয়নের সভাপতি খান আসাদুজ্জামান মাসুম, গ্রীন ভয়েসের সহ-সমন্বয়ক হুমায়ুন কবির সুমন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের সংগঠক রাকিবুল রনি।

সমাবেশে সংহতি জানিয়েছে স্থানীয় এলাকাবাসী, ধানমন্ডি সাতমসজিদ সড়ক গাছ রক্ষা আন্দোলন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতি (বেলা), বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ প্ল্যানার্স (বিআইপি), নারীপক্ষ, বারসিক, পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা), পরিজা, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, দুনিয়াদারি আর্কাইভ, প্রাকৃতিক কৃষি, স্ট্যান্ড ফর আওয়ার এন্ডেঞ্জার্ড ওয়াইল্ডলাইফ (সিউ), গ্রীন ভয়েস, সিআরবি রক্ষা আন্দোলন-চট্টগ্রাম, ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা), তেঁতুলতলা মাঠ রক্ষা আন্দোলন, বায়ুমন্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র (ক্যাপস), ডব্লিউবিবি ট্রাস্ট, বরেন্দ্র ইয়ুথ ফোরাম, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, প ফাউন্ডেশন, ইনস্টিটিউট ফর প্লানিং এন্ড ডেভেলপমেন্ট (আইপিডি), বাংলাদেশ প্রকৃতি সংরক্ষণ জোট (বিএনসিএ), নাট্যদল প্রাচ্যনাট, নদী সুরক্ষা সংগঠন নোঙ্গর বাংলাদেশ, জলপুতুল পাপেট স্টুডিও, সেভ ফিউচার বাংলাদেশ, সবুজ পাতা, অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, পরিবেশ আইনজীবী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, আলোকচিত্রী নাসির আলী মামুন, লেখক শাহীন আখতারসহ নানান শ্রেণি পেশার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান।